পাকিস্তানি খেলোয়াড়দের ভিসা না দেবার কারণে অলিম্পিক থেকে নিষিদ্ধ ভারত।

0
63

 ভারতের জম্মু কাশ্মীরে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার পর আবার উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ভারত-পাকিস্তানের রাজনৈতিক সম্পর্ক। ক্রীড়াঙ্গনেও ছড়িয়ে পড়েছে দুই দেশের রাজনৈতিক উত্তাপ। এর জের ধরে ইতোমধ্যে ভারতে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) সম্প্রচার। এখানেই শেষ নয়, নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠেয় শুটিং বিশ্বকাপে দুই পাকিস্তানি শুটারকে ভিসা দিতে অস্বীকৃতি জানায় ভারত।

এতে উল্টো সমস্যায় পড়েছে ভারত। এখন থেকে অলিম্পিকের সঙ্গে যুক্ত কোনো খেলাই আয়োজন করতে পারবে না তারা। এক নির্দেশনায় এমনটাই জানিয়ে দিয়েছে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)।

গেল ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু কাশ্মীরের পুলওয়ামায় আত্মঘাতী বোমা হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন দেশটির সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) ৪০ জনেরও বেশি সদস্য। এ ছাড়া মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন আরও কয়েকজন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ভারতীয় বাহিনীর ওপর এটাই সবচেয়ে বড় হামলা।

সিআরপিএফ জওয়ানদের ওপর বর্বর এই হামলার দায় স্বীকার করেছে পাকিস্তানের সন্ত্রাসী সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদ। এ সংগঠনটির অবস্থান পাকিস্তানে হওয়ায় আবার উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ভারত-পাকিস্তানের রাজনৈতিক সম্পর্ক। দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক এতটাই বৈরী হয়ে পড়েছে যে, যেকোনো ক্ষেত্রে পাকিস্তানকে বয়কট করতে চাইছে ভারত। এই তালিকা থেকে ক্রীড়াক্ষেত্রও বাদ যাচ্ছে না।

এরই জের ধরে শনিবার থেকে নয়াদিল্লিতে শুরু হতে যাওয়া শুটিং বিশ্বকাপের জন্য পাকিস্তানি শুটারদের ভিসা বাতিল করে ভারত। সব রকম চেষ্টা করেও ভারতের কাছ থেকে ভিসা পেতে ব্যর্থ হয় পাকিস্তানের তিন শুটার। কিন্তু ঘটনাটিকে মোটেই ভালো চোখে নেয়নি আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি।

এক বিবৃতিতে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি জানিয়েছে, ক্রীড়াক্ষেত্রকে কোনোভাবে রাজনীতির সঙ্গে গুলিয়ে ফেলা উচিৎ নয়। পুলওয়ামা হামলার জেরে পাকিস্তানি শুটারদের ভিসা না পাওয়ার ঘটনা অলিম্পিক চার্টারের পরিপন্থী। তাই অলিম্পিকের সঙ্গে সম্পর্কিত যেকোনো আন্তর্জাতিক ইভেন্ট আয়োজন থেকে ভারতকে নিষিদ্ধ করা হলো। সরকারের পক্ষ থেকে যতদিন পর্যন্ত অলিম্পিক চার্টার মেনে চলার লিখিত আশ্বাস না পাওয়া যাবে, ততদিন পর্যন্ত ভারতের মাটিতে অলিম্পিক সম্পর্কিত যেকোনো আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট বন্ধ থাকবে।

ন্যাশনাল রাইফেল অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার প্রেসিডেন্ট রনিন্দর সিং জানান, ‘পাকিস্তানি শুটারদের ভিসা মঞ্জুর করার জন্য আমরা সব রকম চেষ্টা করেছি। এরপরও ভিসা না পাওয়ার ব্যাপারটি দুঃখজনক। তবে টুর্নামেন্ট ফরম্যাটে যেন পরিবর্তন না করা হয়, সে ব্যাপারে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির কাছে আমরা আবেদন জানাব।’

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here